fbpx
সস্তা হোস্টিং কিনে বিপদে পড়ছেন না তো

সস্তা হোস্টিং কিনে বিপদে পড়ছেন না তো?

হোস্টিং ! ওয়েব হোস্টিং ! কি এই ওয়েব হোস্টিং? আমরা কি জানি সেটা? না জানলেও সমস্যা নেই । আজকের এই ব্লগের মাধ্যমে আমরা জানব কি এই ওয়েব হোস্টিং নিয়ে আরও জানব সস্তা ওয়েব হোস্টিং কেন কিনবেন না ব্যবহারকারীরা । 

ওয়েব হোস্টিং কি? 

যদি আপনি আপনার বিজনেস, নিজের ব্লগ , অনলাইন শপ, এজেন্সি , ই কমার্স সাইট কিংবা যা ইচ্ছা আপনি আপনার ডোমেইন নেমের মাধ্যমে পাবলিশ করতে চান তাহলে আপনার নিশ্চয় ওয়েব হোস্টিং প্রয়োজন হবে । আর এজন্য আপনাকে ওয়েব হোস্টিং প্রোভাইডারদের থেকে ওয়েব হোস্টিং কিনতে হবে এবং তার জন্য আপনাকে পেমেন্ট করতে হবে । ওয়েব হোস্টিং হচ্ছে যেখানে ওয়েবে আপনার ফাইলগুলো থাকবে । 

সহজ কথায় আপনি ওয়েবে একটি স্টোরেজ স্পেস কিনবেন যেখানে আপনি যেকোন কিছু হোস্ট করতে পারবেন সেটি হতে পারে টেক্সয়, ভিডিও, ইমেজ ইত্যাদি । আর অফলাইন বা ফিজিক্যাল স্পেস এর মধ্যে ওয়েব হোস্টিং এর মূল পার্থক্য হচ্ছে একজন ব্যবহারকারী কিছুই দেখতে পারবে না যদি আপনি দরজা বন্ধ করে রাখেন কিন্তু ওয়েব হোস্টিং এই সমস্যা নাই । আপনার হোস্টিং শুধুমাত্র আপনার কন্টেন্ট ই ধারণ করবে না বরং এটি আপনার কন্টেন্টকে পাবলিকলি দেখাবে । সুতরাং আপনার ডোমেইন নাম যাই হোক না কেনো আপনার ওয়েবসাইটে এবং আপনার ওয়েব হোস্টিং এ সেগুলোই দেখাবে যেগুলো আপনার স্টোরেজে রয়েছে । 

হোস্টিং প্রোভাইডার থেকে হোস্ট প্ল্যান ক্রয়

  • হোস্টিং প্ল্যান বাছাই করতে হলে আপনাকে বাছাই করতে হবে আপনি কোন সার্ভার নিবেন প্রোভাইডার থেকে (যেমনঃ বাংলাদেশি সার্ভার চাইলে BDIX হোস্টিং) এবং সেই প্ল্যানে কি কি ফিচার থাকবে তা দেখে কেনা উচিত । 
  • যখনই আপনি হোস্টিং এর জন্য আপনি আপনার হোস্টিং প্রোভাইডারকে পেমেন্ট করেন তখন আপনার প্রোভাইডার আপনাকে সার্ভার ব্যবহার করার এক্সেস দিবে এবং তা আপনার ওয়েবসাইটে আপলোড করা যাবে যেখানে আপনি আপনার সকল কোড এবং কন্টেন্ট সেই সার্ভারে আপলোড করতে পারেন । 
  • সকল কিছু আপলোড হয়ে গেলে আপনি আপনার ওয়েবসাইট পাবলিশ করতে পারবেন এবং তখন আপনার আপলোড করা কন্টেন্ট ইন্টারনেট দুনিয়ার যে কেউ যখন ইচ্ছা তা দেখতে পারবে আপনার ডোমেইন নেইম সার্চ করে । 

ওয়েব হোস্টিং এর দাম কত? 

বেশিরভাগ বিগিনাররা এই প্রশ্নটা করে থাকে যে আমার কত টাকা খরচ হবে ওয়েব হোস্টিং কিনতে । এক কথায় উত্তর হচ্ছে আপনার সাইটের স্ট্রাকচার এবং ভিজিটর কোয়ান্টিটির উপর নির্ভর করে এটা বলা যাবে । 

কি কি বিষয় খেয়াল রাখা দরকার ওয়েব হোস্টিং এর ক্ষেত্রে? 

আপনার ওয়েব হোস্টিং কি অটোমেটিক কোর আপডেট নিচ্ছে কি না , DDos প্রটেকশন সিস্টেম রয়েছে কি না , ম্যানেজড হোস্টিং তো , ইন্ট্রিগেটেড সিডিএন আছে কি বা অন্য কোন কোম্পানির রিসেলার তারা এই বিষয়গুলো প্রথমেই খেয়াল রাখা দরকার । এছাড়া সার্ভার লিমিটেশন, সাপোর্ট সিস্টেম , ব্যাকাপ, ডাউনটাইম, সিকিউরিটি ইত্যাদি বিষয়গুলোও মাথায় রাখা উচিত । 

সস্তা হোস্টিং কেন কিনলে কি কি সমস্যা হবে? 

হোস্টিং প্ল্যান বাছাই করার সময় , বিশেষ করে প্রথমবার যখন আপনি কিনবেন তখন নিশ্চয়ই আপনার ওয়েবসাইটের জন্য সস্তা হোস্টিং প্রোভাইডার খুঁজবেন কেননা আপনার টাকার পরিমান কম লাগবে । কিন্তু এটা মোটেই বুদ্ধিমানের পরিচয় বহন করে না । আপনার ওয়েবসাইটের জন্য কি আসলেই সস্তা হোস্টিং ভাল হবে ? সহজ এবং সাবলিল উত্তর হচ্ছে “না” । কেন নিবেন না তার ব্যাখ্যায় আসুন জেনে নিই । 

সিকিউরিটি ইস্যু

প্রথমবার হোস্টিং প্ল্যান বাছাই করার সময় আমরা একটা জিনিস মাথায় রাখি না বা পাশ কাটিয়ে যাই আর সেটি হচ্ছে সিকিউরিটি । আমরা বেশিরভাগই ভেবে থাকি যে যেহেতু আমার ওয়েবসাইটটি নতুন তাই অন্য কেউ বা হ্যাকাররা আমার ওয়েবসাইটের দিকে তাকাবে না কিংবা ক্ষতি করতে চাইবে না । আর এজন্যই আমরা প্রথমেই সস্তা হোস্টিং কিনে থাকি যেগুলার সিকিউরিটি খুব দুর্বল আবার অনেকগুলোতে তো কোন সিকিউরিটি ই থাকে না । আমরা প্রথমেই টাকা বাঁচানোর দেখি লক্ষ্য রাখি ।

কিন্তু আমাদের চিন্তা থেকেও বেশি বার আমাদের ওয়েবসাইট এট্যাকের শিকার হয়ে থাকে । আর সবচেয়ে খারাপ এবং বাজে দিক হচ্ছে সেই এট্যাকগুলোর জন্য আপনার ওয়েবসাইটের মূল্যবান ডাটাগুলোর ক্ষতি হবে এমনকি অনেকসময় তো আপনার সকল ডাটা হারিয়েও যেতে পারে । এর মানে দাঁড়ায় যেই টাকা বাঁচানোর জন্য আপনি ভাল হোস্টিং না কিনে সস্তার দিকে ঝুঁকলেন তার থেকে বেশি পরিমাণ অর্থের ডাটা আপনার চলেও যেতে পারে এসব এট্যাকের জন্য । মানসম্মত হোস্টিং প্ল্যানগুলোতে অতিরিক্ত সিকিউরিটি লেয়ার থাকে এবং প্রটেক্টশন থাকে সস্তা হোস্টিংগুলোর তুলনায় । আর এজন্যই প্রাইস কিছুটা বেশি হয় সেগুলোর । আর দামি হোস্টিংগুলো আপনাকে সেই রকম সমস্যা থেকে অনেকাংশেই রক্ষা করবে বা রক্ষাকবচ হিসেবে কাজ করবে । 

লো কোয়ালিটি পারফরম্যান্স 

ধরে নিন আপনি একটা ওয়েবসাইট বানাবেন এবং সেটির জন্য আপনি সস্তা হোস্টিং কিনলেন । সঠিকভাবে স্পিড অপ্টিমাইজড করলেন । কিছুদিন পর দেখছেন আপনার ওয়েবসাইটটি লোড নিতে যথেষ্ট সময় নিচ্ছে যার মানে হচ্ছে স্লো । কেন এমন হচ্ছে? কি রহস্য এটার পিছনে লুকায়িত আছে? অধিকাংশ সময়েই দেখা যায় একই রিসোর্স একের অধিক মানুষ ব্যবহার করছেন । কি বুঝতেছেন না? আচ্ছা বুঝিয়ে বলছি । ধরে নিন ফিজিক্যাল শপে যেটার জন্য আপনি দিন শেষে ভাড়া গুনছেন সেখানে আপনি আরেকজনের সাথে তা শেয়ার করলেন । কি হবে? আপনার স্পেস কিন্তু কমে যাবে আর সেটি যদি হয় ছোট তবে তো কথাই নেই ।

অনেক দ্রুতই আপনার রিসোর্স ফুরিয়ে যাবে । তখন আপনার হাতে দুটি উপায় থাকবে । একটি হচ্ছে হয় এই ধরনের সিচুয়েশন মেনে নেওয়া আর না হয় এমন কোন স্পেস নিয়ে নেওয়া যেখানে আপনার জায়গা কারো সাথে শেয়ার করতে না হয় । একই জিনিসটা ঘটে থাকে হোস্টিং সার্ভিস এর বেলাতেও । যখন আপনি সস্তা হোস্টিং প্ল্যান বাছাই করবেন, তখন আপনার সার্ভার অন্যের সাথে শেয়ার করা হবে । কিন্তু আপনি যদি ভাল জায়গা থেকে প্রিমিয়াম কোন প্ল্যান নিয়ে থাকেন তবে আপনি কিন্তু আপনার টাকায় কেনা হোস্টিং এর পুরোটাই ব্যবহার করতে পারতেছেন যা আপনার কাজে বেগ না পেতে যথেষ্ট সহায়ক হবে ।

দুর্বল সেবা

ধরেই নিন আপনি কোথাও বেড়াচ্ছেন বা ট্যুর দিবেন, আপনার ফ্লাইট মাত্র শুরু ল্যান্ড করল কিন্তু আপনি আপনার জিনিসপত্রগুলো খুঁজে পাচ্ছেন না । তখন আপনি কি করবেন? নিশ্চয়ই যেখানে জিনিসপত্রগুলো রেখেছিলেন সেখানে থাকা দায়িত্বশীলদের বলবেন আপনার জিনিসগুলো খুঁজে দেওয়ার জন্য । কিন্তু যখন আপনি তার কাছে গেলেন সেখানে আপনি দেখলেন আপনার মতো আরও অনেকেই একই সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন । সবাই একই টিকেট কেটেছিলেন (ধরুন ইকোনোমি ক্লাসের) কিন্তু একজন এক্ষেত্রে ভিন্ন কেননা সে ফার্স্ট ক্লাসের টিকিট কিনেছিল ।

এখন আপনার কাছে কি মনে হয়? কর্তৃপক্ষ কারটা আগে খুঁজে দিবে? নিশ্চয় আপনারটা নয় বরং যেই বান্দা ফার্স্ট ক্লাসের টিকিট কেটেছিল তারটাই তারা প্রায়োরিটি লিস্টে সবার আগে রাখবে । সিমিলার জিনিসগুলোই কিন্তু হোস্টিং এর সাপোর্ট এর বেলাতেও ঘটে থাকে । আপনি যদি চিপ হোস্টিং সার্ভিস খুঁজেন তবে তারা আপনার দিকে সামান্য দৃষ্টিতে তাকাবে । আপনার কোন সমস্যা হয়েছে হোস্টিং কিন্তু তারা আপনাক সেই রকম কোন মূল্যায়ন করবে না । কিন্তু আপনি যদি ভাল জায়গা থেকে হোস্টিং নিয়ে থাকেন তবে যথেষ্ট ভাল সাপোর্ট পাবেন । 

অদক্ষ সাপোর্ট টিম

প্রথমত আপনি যদি সস্তা হোস্টিং নিয়ে থাকেন তবে তারা আপনার সমস্যাকে সমস্যাই মনে করবে না । আপনার হোস্টিং রিলেটেড ইস্যু হয়েছে? সমাধান করতে পারতেছেন না? তাহলে ধরে নিন সেই সকল হোস্টিং কোম্পানির স্টাফদের থেকে তেমন কোন সহযোগিতা পাবেন না কারণ বেশিরভাগ ই অদক্ষ এবং যথেষ্ট স্কিলফুল্ড নয় । আর ফলাফল? আপয়ান্র ইস্যুটি সমাধান হবে না । লাক বাই চান্স যদি ধরেও নেন যে আপনার সস্তা হোস্টিং এ দক্ষ স্টাফ পেলেন কিন্তু তারা দেখা যায় পেমেন্টের ভিত্তিতে কাজ করে দেয় অর্থাৎ আফটার সেলস সার্ভিস প্রোভাইডে তারা বাধ্য হয় না । কিন্তু আপনি যদি আর একটু বাড়িয়ে ভাল জায়গা থেকে হোস্টিং কিনে থাকতেন তবে কিন্তু আপনি যথেষ্ট সাপোর্ট পাবেন এবং সমস্যার সমাধান ও করে ফেলতে পারবেন । 

ব্যাকাপ ইস্যু 

ব্যাকাপ থাকাটা একটি ওয়েবসাইটের জন্য অতীব জরুরী একটি বিষয় । কারণ সার্ভার যেকোন সময় ক্র্যাশ করতে পারে কিংবা আপনার ওয়েবসাইট যদি অফলাইনে চলে যায় তখনও কিন্তু আপনার প্রয়োজন পড়বে ব্যাকাপের । কিন্তু সস্তা হোস্টিং গুলোতে অধিকাংশ সময়েই দেখা যায় ব্যাকাপ পাওয়া যায় না । তারা হয়ত মাসে একবার করে থাকে কিন্তু ওয়েবসাইটের ব্যাকাপ প্রতিদিন বা অন্তত প্রত আপডেটে থাকা বাঞ্ছনীয় যাতে আপনার কন্টেন্ট সেইফ থাকে এবং আপনার সাইট অফলাইনে চলে গেলেও সুরক্ষিত থাকে । কিন্তু সস্তা প্রোভাইডাররা সেটা করে না ।

হিডেন চার্জ  

যেকোন সময়েই হোস্টিং প্রোভাইডাররা আকর্ষিক চার্জ দাবি করে বসে । হতে পারে সেটা আপনার ওয়েবসাইট পারফরম্যান্স ইম্প্রুভ বা সিকিউরিটি লেয়ারের জন্য আবার ব্যাকাপ রিস্টোর বা হোস্টিং ইস্যুর জন্য । কিন্তু ভালো হোস্টিং এ এসকল কোন হিডেন অতিরিক্ত চার্জ নেই । সাপোর্ট টিমকে গ্রাহকের অতিরিক্ত অর্থ প্রদান করার ঝামেলাও অনেকসময় পোহাতে হয় এসকল নিম্ন মানের হোস্টিং প্রোভাইডারদের । 

কোন হোস্টিং কিনবেন? 

আপনি যেহেতু এতক্ষণ ধরে জানলেন কেন সস্তা হোস্টিং নিবেন না তাইলে আসুন এখন জেনে নিই একটা ভাল হোস্টিং এর কি কি বৈশিষ্ট্য থেকে থাকে । তবে এক্ষেত্রে আমাদের সাজেশন থাকবে Hostever থেকে হোস্টিং কেনা । কেন নিবেন আসুন জেনে নেই । 

নিজস্ব সার্ভারঃ হোস্টএভারের নিজস্ব সার্ভার রয়েছে । যার ফলে অন্যের থেকে রিসেলার হিসেবে সেবা তাদের দিতে হয় না । 

সুরক্ষিত সেবাঃ হোস্টএভারের পক্ষ থেকে আপনার হোস্টিং এর নিরাপত্তার জন্য এক্সটারনাল সব ধরনের সুবিধা দেওয়া হয় । এমনকি তাদের এডভান্সড প্যাকেজের পাশাপাশি তাদের বাজেট প্যাকেজেও Imunify 360 নামক এন্টিভাইরাস প্রোভাইড করা হয় যা পরিচিত ভাইরাস হলে একাই তা রিমুভ করে ফেলার ক্ষমতা রাখে ।

হাই কোয়ালিটি পারফরম্যান্সঃ হোস্টএভারের সার্ভার পারফরম্যান্স অত্যন্ত ভাল আর সেটি ডাউনটাইম প্রায় শূন্যের কোঠায় । 

স্পীড সাপোর্টঃ হোস্টএভারের সাপোর্ট অতুলনীয় । খুব দ্রুত এরা লাইভ চ্যাটে রিপ্লাই দিয়ে থাকে এবং সাপোর্ট টিকেটে ৩০ মিনিটের মধ্যে রিপ্লাই করা হয় । 

দক্ষ সাপোর্ট টিমঃ Hostever এর সাপোর্ট টিম অত্যন্ত দক্ষ এবং কাজের প্রতি দায়িত্বশীল যার কারণে কাস্টমারকে প্রথম প্রাধান্য দিয়ে থাকে । 

ব্যাকাপ সিস্টেমঃ হোস্টএভার তাদের বাজেট প্যাকেজে ৩ দিন এবং এডভান্সড প্যাকেজে ৭ দিন পর্যন্ত ব্যাকাপ সুবিধা দিচ্ছে । 

নো হিডেন চার্জঃ অতিরিক্ত কোন সুপ্ত চার্জ এখানে নেই । সাপোর্ট এর জন্য আলাদা ভাবে চার্জ নেওয়া হয় না । 

তাই সবশেষে সিদ্ধান্ত আপনার হাতে । আপনি জেনে বুঝে নিজের ডাটাকে বিপদের মুখোমুখি করবেন নাকি কিছুটা বাড়তি মূল্য পরিশোধ করে মানসম্মত সেবা নিবেন । চয়েস ইজ ইয়োরস ।